কৌতূহলী হতে হবে, প্রশ্ন করতে হবে

মোঃ রাশেদুল ইসলাম

একটি প্রশ্ন করতে চাই। আমরা প্রতিদিন নিজেকে কতটা সময় দেই? নিজেকে জানার জন্য ঠিক কতটুকু সময় বরাদ্দ থাকে আমাদের!

অনেকেই হয়ত এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পারবো না। কারণ এভাবে আমরা হয়ত চিন্তাই করি না। কিন্তু জীবনে সফল হওয়ার অন্যতম চাবিকাঠি হচ্ছে নিজেকে জানা। নিজের সম্পর্কে কৌতূহলী হওয়া। 

প্রযুক্তির কল্যাণে একবিংশ শতাব্দী খুবই দ্রুত পরিবর্তনশীল। আজকে যা নতুন আগামীকালকে তা হয়ে যাচ্ছে পুরাতন। এমন সময়ে দাঁড়িয়ে আমরা যদি এই ক্রমবর্ধমান প্রযুক্তির গতির সাথে তাল মিলিয়ে না চলতে পারি তবে আমরাও হয়ে যাব অচল। তো আমরা কি চাই কালের অতল গহ্বরে হারিয়ে যেতে নাকি অনাদিকাল টিকে থাকতে। এর উত্তর জানতে হবে। নিজে কি চাই সেটা জানতে হবে। 

পেশা হিসাবে কি বেছে নিব সেটি নিজেকেই ঠিক করতে হবে। আর সে জন্য নিজের সম্পর্কে জানতে হবে। জীবনে বড় হতে হলে জানার কোন বিকল্প নেই। আপনি যে সেক্টরেই কাজ করতে চান না কেন প্রযুক্তিকে অস্বীকার করার উপায় নেই। এই প্রযুক্তি কিভাবে আপনার সহায়ক হতে পারে জানতে হবে সেটিও। জানতে হবে কিভাবে জানতে হয়।

বলা হয়, আপনি যদি কোন মানুষকে একটি মাছ দেন তার মানে হচ্ছে আপনি তার এক দিনের খাবারের ব্যবস্থা করলেন। আর যদি আপনি তাকে কিভাবে মাছ চাষ করতে হয় কিংবা কিভাবে মাছ ধরতে হয় সেটি শিখান তবে আপনি তার সারা জীবনের খাবারের ব্যবস্থা করলেন। তার মানে প্রক্রিয়াটা জানতে হবে। সেটা জানার জন্য কৌতূহলী হতে হবে।

শুধু কৌতূহলী হলেই হবে না; সেই কৌতূহল মেটানোর জন্য প্রশ্ন করতে হবে। প্রশ্ন করার কোন বিকল্প নেই। আপনি ছোট বেলায় যা শিখেছিলেন তার অনেক কিছুই আপনার এখনো মনে আছে, কোন প্রকার রিভিশন ছাড়াই। মনে আছে কারণ আমরা ছোটবেলায় কৌতূহল নিয়ে শিখি, প্রশ্ন করতে করতে শিখি। কৌতূহল যত কমতে থাকে, প্রশ্ন করা যত কমতে থাকে; আমাদের জানার পরিধিও কমতে থাকে। তাই জানতে হলে কৌতূহলী হতে হবে, প্রশ্ন করতে হবে।


মোঃ রাশেদুল ইসলাম 

প্রভাষক, সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ 

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি


মন্তব্য লিখুন :